মোবাইল ফোন নিয়ে বোনের সাথে অভিমান করে কিশোরীর আত্নহত্যা

মোবাইল ফোন নিয়ে বোনের সাথে অভিমান করে কিশোরীর আত্নহত্যা

ফতুল্লা প্রতিনিধিঃ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় মোবাইল ফোন নিয়ে বোনের সাথে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেছে মারুফা(১৪) নামের এক কিশোরী।

সোমবার রাতে ফতুল্লার দক্ষিন নয়ামটির জান্নাতুল ফেরদৌস লুবনার বাড়ীর ভাড়াটিয়া বাসা থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত মারুফা ফতুল্লা মডেল থানার দক্ষিন নয়ামটির জান্নাতুল ফেরদৌস লুবনার বাড়ীর ভাড়াটিয়া আব্দুল মান্নান মৃধার মেয়ে।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছে।

মামলায় উল্লেখ্য করা হয়, বাদীর মেঝো মেয়ে সুমাইয়া ও তার স্বামী সোমবার বিকেল ৫ টার দিকে নয়ামাটিস্থ বাসায় বেড়াতে আসে। সে সময় বাদীর মেঝো মেয়ে বাসায় ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি নিহত মারুফার নিকট হতে নিয়ে যায়। রাত সাতটার দিকে বাদী বাসায় ফিরে এসে দেখে ভাড়াটিয়া বাসার নীচতলার মাঝের রুম ভিতর হতে বন্ধ। তখন বাদী ডাকাডাকি করে কোন সারাশব্দ না পেয়ে ঘরের দরজার উপরের ফাঁক দিয়ে দেখতে পায় সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেঁচানো নিহত মারুফার ঝুলন্ত দেহ। পুলিশ কে সংবাদ দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঘরের দরজা ভেঙ্গে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায়। নিহত মারুফার বাবার ধারনা মোবাইল ফোন নিয়ে যাওয়াতে অভিমান করে মারুফা আত্নহত্যা করেছে।