বহুতল ভবনের ফ্ল্যাটে পড়েছিল বৃদ্ধের হাত-পা বাঁধা লাশ

লাশ উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জে ফতুল্লার একটি বহুতল ভবনের ফ্ল্যাট থেকে আব্দুর রাজ্জাক (৫৫) নামে এক বৃদ্ধের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) সকালে পাগলার নুরবাগ এলাকার জয়নাল আবেদীনের ৫ম তলা ভবনের একটি ফ্ল্যাট থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত আব্দুর রাজ্জাক শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার মৃত আব্দুল খাঁর ছেলে। আব্দুর রাজ্জাক তার ছেলেকে নিয়ে ওই ফ্ল্যাটে বসবাস করতেন।

নিহতের ছেলে আকাশ জানায়, তার মা বিগত ৫ মাস পূর্বে মৃত্যু বরণ করেন। বাবাকে নিয়ে তিনি এই ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। তিনি রাজধানীর নবাবপুরে একটি দোকানে চাকুরি করেন। তার বাবা আব্দুর রাজ্জাক এক সময় রাজমিস্ত্রীর কাজ করলেও বর্তমানে অবসর জীবন যাপন করতেন।

তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবার রাত দশটার দিকে তিনি দোকান থেকে বাসায় ফিরে এসে দেখেন ফ্ল্যাটের দরজা তালাবদ্ধ। এতে তিনি নিকটস্থ খালার বাসায় গিয়ে রাতের খাবার খেয়ে আবারো রাত সাড়ে বারোটার দিকে বাসায় ফিরে এসে তালাবদ্ধ দেখতে পান। পরে এক বন্ধুর বাসায় গিয়ে রাত্রীযাপন করেন তিনি। পরের দিন (শুক্রবার)সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে বাসায় ফিরে আবারও তালাবদ্ধ দেখতে পেয়ে বন্ধুকে নিয়ে ফ্ল্যাটের তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে খাটের উপর হাত-পা বাঁধা অবস্থায় তার বাবার মরদেহ দেখতে পান। 

তিনি ধারণা করেন, তার বাবার হাত-পা বেঁধে মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। হত্যা শেষে বাইরে থেকে ফ্ল্যাটে তালা মেরে রাখা হয়।

ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরির্দশক (এসআই) মো. মফিজুল ইসলাম, খবর পেয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে, এটা পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। এ ঘটনায় পিবিআই এর একটি টিম ঘঠনাস্থলে  আসছে। পরিবারের অন্য সদস্যদের খবর দেয়া হয়েছে। 

ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নূরে আযম মিয়া জানান, হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের সনাক্তসহ রহস্য উদঘাটনে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে। এ ঘটনায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান তিনি।