ফতুল্লায় যুবককে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা, আসামি ৯

ফতুল্লা প্রতিনিধি:

ফতুল্লার চানমারীতে মানিক ওরফে কালা মানিক ওরফে পিচ্চি মানিক (৩৫) হত্যাকান্ডের ঘটনায় ৯ জনের নাম উল্লেখ্য সহ অজ্ঞাত নামা ৬-৭ জনকে আসামী করে মামলা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে নিহতের স্ত্রী ডালিয়া বেগম (২৬) বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

এর আগে, সোমবার রাতে চানমারী মাউরাপট্রি দাউদ-শরীফের গ্যারেজে মানিক ওরফে কালা মানওক ওরফে পিচ্চি মানিক কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।নিহত মানিক ওরফে কালা মানিক ওরফে পিচ্চি মানিক ফতুল্লা মডেল থানার টাগারপাড় আল আমিনবাগের আব্দুস সালামের পু্ত্র।

মামলার আসামীরা হলেন – দাউদ(৫৫), শরীফ(৩৫), আরিফ(২৯), সজীব(২৭),শান্ত(২৩),নাঈম(২১),তুহিন(২৫), জিসান(২০) ও জুয়েল (২০) সহ অজ্ঞাত নামা আরো ৬-৭ জন।

মামলায় উল্লেখ্য করা হয়, নিহত মানিক ওরফে কালা মানিক ওরফে পিচ্চি মানিক একজন রড-সিমেন্ট ব্যবসায়ী। হক বাজার এলাকা তার একটি রড- সিমেন্টের দোকান রয়েছে। অভিযুক্তদের সাথে নানা বিষয়ে পূর্ব শত্রুতা চলে আসছিলো। সোমবার রাত আটটার দিকে নিহত মানিক ওরফে কালা মানিক ওরফে পিচ্চি মানিক তার তিন বন্ধু সৌরভ, রুবেল ও রাশেদ বাবু কে নিয়ে চানমারী সেকশন বাড়ী যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হয়। পৌনে নয়টার দিকে চানমারী মাউরাপট্রি দোতলা গার্মেন্টস সংলগ্ন দাউদ- শরীফের গ্যারজের সামনে পৌছামাত্র বাদীর স্বামী কে কৌশলে শরীফ গ্যারেজের ভিতর নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে গিয়ে অভিযুক্ত আসামীরা বাদীর স্বামীকে পূর্ব – পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে কোপাতে থাকে। এ সময় গ্যারেজের ভিতর প্রবেশ করে কোপানোর দৃশ্য দেখতে পেয়ে চিৎকার করলে তার অপর দুই বন্ধু রুবেল ও রাশেদ বাবু নিহতকে বাঁচাতে এগিয়ে আসে। এ সময় আসামীরা বাবুকে ও রক্তাক্ত জখম করে। মানিল ওরফে কালা মানিক ওরফে পিচ্চি মানিকের মৃত্যু নিশ্চিত করে ঘাতকচক্র ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। রাত পৌনে দশটার দিকে শহরের খানপুর তিনশ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা মানিক ওরফে কালা মানিক ওরফে পিচ্চি মানিক কে মৃত ঘোষনা করে।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও ফতুল্লা মডেল থানার হাজী ফাড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) শ্রী উত্তম কুমার রায় জানান, নিহতের স্ত্রী বাদী হত্যা মামলা দায়ের করেছে। অভিযুক্ত আসামীদের গ্রেফতারে তারা কাজ করছে।