ফতুল্লায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে টেটা যুদ্ধ ও গুলি, আহত ১৫

রূপগঞ্জে যুবলীগ-ছাত্রলীগের সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

ফতুল্লার বক্তাবলীতে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে টেটাযুদ্ধসহ শর্ট গানের গুলি ছোড়া হয় বলে জানায় পুলিশ। এতে টেটাবিদ্ধসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। 

রবিবার (২৬ মে) বিকেলে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বক্তাবলীতে রহিম হাজী ও সামেদ আলীর পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। সংর্ঘষের সময় এলাকায় অস্থিরতা বিরাজ করে। পরবর্তীতে আহতদের মধ্যে কয়েক জনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এছাড়া ২ জনকে নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালে (খানপুর হাসপাতালে) পাঠানো হয়।

নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালের চিকিৎসা তত্তাবধায়ক মো. আবুল বাশার জানান, বিকেল ৪টায় দুই টেটাবিদ্ধ অবস্থায় জরুরী বিভাগে আনা হয়। তাদের পায়ে টেটা বিদ্ধ ছিল। আহতরা হলেন, চম্পা (২০) ও বিল্লাস (২৪)। তাদের প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে ফতুল্লা থানার পুলিশ পরিদর্শক (অফিসার ইনচার্জ) আহসান উল্লাহ বলেন, বক্তবলীতে ৩ টার দিকে দুই পক্ষের মধ্যে টেটাযুদ্ধ হয়েছে। এসময় প্রতিপক্ষের দিকে তাক করে শর্ট গানের গুলিও ছোড়া হয়। এ ঘটনায় কয়েকজন আহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থলে থাকা ফতুল্লা থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) কাজী মাসুদ জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। ঘটনাস্থলে এসে সন্দেহভাজন কাউকে পাওয়া যায় নি। কে বা কারা সংঘর্ষে ছিল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।