পাঁচ উপজেলায় বসবে ৭৫টি পশুর হাট, সিটিতে ১৪টি

পবিত্র ঈদুল আজহা বা কোরবানির ঈদ উপলক্ষ্যে জেলায় ৭৫টি পশুর হাটের ইজারা দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন। তবে বেশ কয়েকটি টেন্ডার এখনো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে, ফলে আরও কয়েকটি হাটের সংখ্যা বাড়তে পারে।

মঙ্গলবার (১১ জুন) সকালে বিষয়টি জানিয়েছেন স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক মৌরীন করিম।

এ বিষয়ে স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক বলেন, ‘এবার পুরো জেলায় আমরা মোট ৭৫টি হাটের অনুমোতি দিয়েছি। এখনো কিছু টেন্ডার প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে, সেগুলো গ্রহণ করা হলে হাটের সংখ্যা আরেকটু বাড়তেও পারে।’
এছাড়া 

শহরের ১৪টি স্থানে অস্থায়ী কোরবানির পশুর হাট বসানোর জন্য দরপত্র আহ্বান করেছে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন।

জেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গতবারের তুলনায় এবার নারায়ণগঞ্জে বেড়েছে কোরবানির পশুর চাহিদা। গতবার নারায়ণগঞ্জে মোট গরু কোরবানি হয় ১লাখ তিন হাজার। অন্যদিকে, এবার নারায়ণগঞ্জে কোরবানির পশুর চাহিদা ১ লাখ ৬৬ হাজার ৮০৩।

কোরবানির এসব পশুর চাহিদা মেটাতে, নারায়ণগঞ্জের পাঁচটি উপজেলায় প্রায় ১০ হাজার খামারি রয়েছেন। তাদের মধ্যে ৪৩২৭জন রেজিস্টার্ড ও বাকিগুলো মৌসুমি খামারি। চলতি মৌসুমে এসব খামারে ৪৩হাজার ৬৬০টি ছাগল, ১৩৩৩টি ভেড়া ও ২৫হাজার ৯৮৯টি গরু লালন পালণ করে কোরবানির উপযোগী করে তুলেছেন খামারিরা। এছাড়া চাহিদার বাকি কোরবানির পশু প্রতিবারের ন্যায় দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসবে বলে জানা যায়।