ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জে কুমারী পূজা পালিত

বাংলার নারায়ণগঞ্জ ডটকম :

নারায়ণগঞ্জ শহরের রামকৃষ্ণ মিশনে শারদীয় দুর্গোৎসবের মহা অষ্টমীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (২২ অক্টোবর) সকাল ১১টায় কুমারী পূজা পরিচালনা করেন মিশনের স্বামী মহারাজ একনাথনন্দ।

পূজায় নারায়ণগঞ্জ ছাড়াও বিভিন্ন জেলা থেকে হিন্দু সম্প্রদায়ের হাজার হাজার পূণ্যার্থী অংশগ্রহণ করেন।

এবার কুমারী দেবীরূপে মন্ডপে অধিষ্ঠিত হয় নগরীর দেওভোগ এলাকার বিদ্যা নিকেতন হাই স্কুলের তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রী মিষ্টি চক্রবর্তী। তার বাবা দীপঙ্কর চক্রবর্তী পেশায় পুরোহিত, মা শম্পা চক্রবর্তী গৃহিনী।

শাস্ত্র মতে, প্রতিটি মেয়ের মাঝে মা বিরাজমান। সেটা জেনে কুমারী পূজা করা হয়। অতিতে এটার অনেক প্রচলন ছিলো। বর্তমানে অনেক কম পালন করা হয়। বাচ্চাদের মাঝখান থেকেই ভগমানের আর্বিভাব হয়। তাই বাচ্চাদের মন নিস্পাপ বলে বাচ্চদের পূজা করা হয়।

হিন্দু ধর্ম মতে, কুমারী হচ্ছে শুদ্ধতার প্রতীক। দেবী দুর্গার আরেক নাম কুমারী। এ পূজার মাধ্যমে স্বয়ং মা দুর্গা মানুষের ভেতরে বিকশিত হন। এ কুমারী পূজার জন্য সৎ বংশজাত গোলককন্যা একজন বালিকাকে নির্বাচিত করা হয়।