ট্যাংকলরি থেকে ফার্নেস অয়েল সংগ্রহকালে যুবকের মৃত্যু, আহত ২

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ট্যাংকলরি থেকে ফার্নেস অয়েল সংগ্রহ করতে গিয়ে বিষাক্ত গ্যাস জমে থাকার কারণে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুজন।  

সোমবার (২৭ নভেম্বর) সকালে আদমজী এসও রোড এলাকার মেঘনা ডিপোতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আবু সাঈদ (২২) ওই এলাকার নাজির হোসেনের ছেলে। সে এসও রোড এলাকায় ইসমাঈলের তেলের গাড়ির ড্রাইভার হিসেবে কাজ করতেন। এ ঘটনায় আহত হোন নিহতের ছোট ভাই ফাহিম (১২) এবং তার বাবা নাজির হোসেন (৪৫)।

নিহতের পরিবারসূত্রে জানা যায়, ওই ট্যাংকলরির মালিক জাহাঙ্গীর তাদের গতকাল রাতে গাড়ি থেকে অবশিষ্ট তেল সংগ্রহ করে গাড়িটি পরিষ্কার করে দিতে বলে। তার কথায় প্রথমে ফাহিম গাড়িটির ভেতর নামলে সে বের না হওয়ায় তাকে উদ্ধার করতে তার বাবা নাজির ট্যাংকলরির ভেতরে নামে। পরবর্তীতে তাদের দুজনেরই কোনো  হদিস না মিললে নাজিরের বড় ছেলে আবু সাঈদও ট্যাংকলরির ভেতরে নামে। তখন এলাকাবাসী আহত অবস্থায় তাদের তিনজনকে উদ্ধার করে সুফিয়া হাসপাতালে ভর্তি করেন। এসময় সাঈদের অবস্থা খারাপ দেখা গেলে তাকে নারায়ণগঞ্জ খানপুর হাসপাতালে নেওয়া হলে ওইখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সিদ্ধিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা জানান, ট্যাংকলরিটির ভেতর গ্যাসের চাপ থাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। এতে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে নিহতের বাবা নাজির হােসেন সুস্থ রয়েছেন। আর ফাহিমের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান তিনি।